ফোরক্বান মিডিয়া
ফোরক্বান মিডিয়া

ওয়াহাবী বলে যারা গালি দেই এরা ইংরেজদের দালাল

  • পোস্টটি প্রকাশিত হয়েছে - 12 September, 2019, Thursday
  • 48 বার দেখা হয়েছে
  • ফোরকান মিডিয়া ডটকম: মনে রাখা খুবই প্রয়োজন, মুসলিম ওয়াহাবীরাই সর্বপ্রথম বিস্তীর্ণ অঞ্চলে সংঘবদ্ধ ভাবে ভারতবর্ষে হতে ইংরেজ দের তারিয়ে ছিলো।

    আজ নামধারী সুন্নী লেবেল ধারী গুষ্টি .আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের অনুষারী দের গালী স্বরূপ ওয়াহাবী বলে ডাকে । এসম্পর্কিত কিছু আলোচনা।

    বেরেলীর সৈয়দ আহমদ শহীদ (রহ.) এর নিহত হওয়ার পর যেসব আন্দোলন, বিদ্রোহ বা সংগ্রাম সংঘটিত হয়েছিল, সেগুলো কে বিকৃত করে তাদের নাম পাল্টে কোনোটাকে বলা হয়েছে সিপাহী বিদ্রোহ,কোনোটাকে বলা হয়েছে,ওয়াহাবী আন্দোলন। আবার কোনটা কে হিন্দু-মুসলমানের সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বলে চালিয়ে দেয়া হয়েছে।
    ওয়াহাবী নেতাদের ওয়াহাবী বলা মানে তাদের শ্রদ্ধা করা তো নয় বরং নিশ্চিত ভাবে গালি দেওয়াই হয়।
    যেহেতু এই মহান বিপ্লবীরাই তাদেরকে , ওয়াহাবী নামে আখ্যায়িত করার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে ছিলেন।

    আসল ঘটনা…
    আসল ঘটনা হলো সপ্তদশ খৃষ্টাব্দে আরববিশ্বে ছড়িয়ে পড়া শিরক বিদআত ও কুসংস্কারের বিরুদ্ধে মুহাম্মদ ইবনে আব্দুল ওয়াহহাব ছিলেন বজ্রকঠোর ।
    যে সমস্ত বিষয়ে তিনি কঠোর ছিলেন।

    *কবরের উপর সৌধ নির্মাণ ওকবরকে ইট পাথর দিয়ে বাঁধানো প্রভৃতির উপর তিনি নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিলেন। এগুলো তিনার মুখের কথায় ছিলোনা বরং তিনি মক্কা মদিনার অনেক নামিদামি লোকদের কবর ভেঙ্গে ফেলেছিলেন । ফলে কবর বাধা এমন সব কর্ম থেকে মুসলমান রা ক্রমে বিরত থাকতে শুরু করেন।

    ইংরেজ রা মুসলিমদের বিপ্লবীদের মতিগতি লক্ষ্য করে ঐ আন্দোলন যে তাদের বিরুদ্ধে অব্যর্থ আগ্নেয়গিরি সৃষ্টি করছে তা বুঝতে পেরেছিল। তাই তারা কতগুলো হতদরিদ্র ও দুর্বলমনা আলেমকে টাকা দিয়ে ঘুরিয়ে তাদের মুখ দিয়ে বলিয়ে নিল – তোমরা যুগ যুগ ধরে যা করে আসছ ,তা করতে থাক । এই বিপ্লবী ওরা নবী ,সাহাবী ওলীদের কবর ভাঙার দল । ইংরেজ রা তাদের প্রচার যোগ দিয়ে বলল ১৮২২ খ্রিষ্টাব্দে সৈয়দ আহমদ মক্কায় যান ,ও খানে গিয়েই তিনি ওয়াহাবী মতে দীক্ষা গ্রহণ করেন। অথচ এটা একে বারে মিথ্যা কথা ।

    ** বস্তুতঃ- তার হজ্বে যাওয়ার পূর্বের এবং পরের কার্যাবলী সঙ্গে আরবের ওয়াহাবী আন্দোলনের কোন যোগাযোগ ছিল না।

    কারন ,তারিখ হিসেব করলে দেখা যায় , আরবের মুহাম্মদ ইবনে আব্দুল ওয়াহাবের যখন মৃত্যু হচ্ছে –১৭৮৭ খ্রিষ্টাব্দে — তখন সৈয়দ আহমদ বেরেলি রহ. (জন্ম ১৭৮৬ ,২৯শে নভেম্বর )এর বয়স মাত্র এক বৎসর ।এ থেকে তাঁর সঙ্গে এর যে কোনো যোগাযোগ ছিল না তা স্পষ্টই প্রমাণিত হয় ।

    *শেষ কথা

    আমারা এ দীর্ঘ আলোচনার মাধ্যমে এ কথা ভালো করে বুঝিতে পারিয়াছী যে, ওয়াহাবী মূলত বিপ্লবী মুসলিম .. কিন্তু ইংরেজ .. শারমীয় বৎসরা এ নাম কে কাজে লাগিয়ে .. দুর্বল ঈমান দার দের দিয়ে .. খারাপ কাজ করিয়ে ওয়াহাবী নাম এর বদনাম করেছে ।
    তাই আসুন যারা ওলামায়ে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত এর অনুসারী দের ওয়াহাবী বলে গালি দেয় তাদের একটু বুঝাই এবং যে কোন ভাবে তাদের বিরত রাখি ,,

    

    অ্যাকাউন্ট প্যানেল

    আমাকে মনে রাখুন

    আর্কাইভ

    November 2019
    S S M T W T F
    « Oct    
     1
    2345678
    9101112131415
    16171819202122
    23242526272829
    30